লাইফস্টাইল

বসে খাওয়ার উপকারিতা

  প্রতিনিধি ২০ অক্টোবর ২০২২ , ৯:৪৫:৩৮ প্রিন্ট সংস্করণ

একটা সময় ছিল যখন বেশিরভাগ বাড়িতেই মেঝেতে আসন পেতে থালা রেখে দুপুর বা রাতের খাওয়া হত। এমনকি অনুষ্ঠান বাড়িতেও লোকজন মেঝেতে বসেই খেত। কিন্তু এখন মেঝেতে বসে খাওয়ার চল প্রায় নেই বললেই চলে। আজকের দিনে প্রায় প্রত্যেক বাড়িতেই টেবিল-চেয়ারে বসে খাওয়ার চল।

কিন্তু স্বাস্থ্য ভালো রাখতে পুরানো অভ্যাস ফেরানোর পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। মাটিতে বসে খাওয়ার ফলে স্বাস্থ্যের একাধিক উপকার হয়। জেনে নিন –

# মেঝেতে বসে খাওয়ার সময় আমরা যেভাবে হাঁটু ভাজ করে বসি, সেটা হল যোগাসনের ভঙ্গি। সুতরাং একই সময়ে বসা, খাওয়া এবং যোগাসনও হয়ে যায়। এই ভাবে বসলে পেটের তলদেশে চাপ পড়ে এবং এই ভঙ্গি মানসিক উদ্বেগ থেকেও মুক্ত করে। এই ভাবে বসলে ভালো হজম হয়। এই অবস্থানে বসে, আমরা খাওয়ার জন্য সামনের দিকে অনেকটা ঝুঁকি এবং তারপর খাবার গেলার জন্য সোজা হয়ে যাই। এইভাবে ক্রমাগত করার ফলে আমাদের পেটের পেশীগুলি সক্রিয় হয়ে ওঠে এবং হজম শক্তি আরও ভালো করে।

# সাধারণত অতিরিক্ত খাওয়ার ফলে ওজন বাড়তে শুরু করে। ভেগাস নার্ভ মস্তিষ্কে সংকেত পাঠায় যে আপনি পরিতৃপ্ত হয়েছেন কি না বা আপনার পেট ভরেছে কি না। কিন্তু টেবিল-চেয়ারে বসে খেলে, এই স্নায়ু ঠিকমতো কাজ করে না। ব্রেনে সংকেত পাঠাতে পারে না। আর এমনটা হওয়ার কারণে বেশি মাত্রায় খাওয়া হয়ে যায়, ফলে ওজন বাড়ে। খাওয়ার সময় মেঝেতে বসলে এই স্নায়ু ভালোভাবে কাজ করে, ফলে অতিরিক্ত খাওয়ার সুযোগ থাকে না।

# এই অভ্যাসটি আমাদের শরীরকে আরও শক্তিশালী এবং ফ্লেক্সিবল করে তুলতে পারে। এতে পা, হাঁটু, নিতম্ব, কোমর, মেরুদণ্ড, বুক এবং গোড়ালি প্রসারিত করে, যার ফলে এই অংশগুলো আরও ফ্লেক্সিবল হয়। এইভাবে বসার সময় হাঁটু যেভাবে বাঁকাতে হয়, তাতে হাঁটুর ভালো ব্যায়াম হয়। শরীরের নীচের অংশের গাঁটগুলি আরও সক্রিয় হয়ে ওঠে। ফলে কোনও ব্যথা বা বেদনা হওয়ার আশঙ্কা থাকে না। কিন্তু চেয়ারে বেশিক্ষণ বসে থাকলে পিঠে, নিতম্বে ব্যথা হয় এবং সেগুলো শক্ত ও দুর্বল হয়ে পড়ে।

# ইউরোপিয়ান জার্নাল অফ প্রিভেনটিভ কার্ডিওলজিতে প্রকাশিত একটি গবেষণা অনুসারে, যারা ক্রস-লেগড পজিশনে বসেন এবং কোনও সাপোর্ট ছাড়াই উঠতে পারেন, তাদের অনেক দিন বাঁচার সম্ভাবনা বেশি থাকে। কারণ কোনও সাপোর্ট ছাড়াই নীচ থেকে উঠতে বেশ শক্তি এবং ফ্লেক্সিবিলির প্রয়োজন হয়।

# ভালো হজম হওয়ার জন্য শরীরে সঠিক রক্ত সঞ্চালন হওয়া খুবই প্রয়োজন। এই ভঙ্গিতে বসে থাকার ফলে শরীরের পেশী শক্তিশালী হয় এবং শরীরের রক্তসঞ্চালনও ঠিক মতো হয়। তাছাড়া, মাটিতে বসলে শরীরে অক্সিজেন সরবরাহের পরিমাণও বেড়ে যায়। যার প্রভাব পড়ে সোজা হার্টের ওপর। তাতে হার্ট ভালো থাকে।